টঙ্গীতে ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ মাদক মামলার আসামি নিহত

প্রতীকী ছবিগাজীপুরের টঙ্গীতে র‌্যাবের সঙ্গে কথিত ‘বন্ধুকযুদ্ধে’ এক যুবক নিহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার দিবাগত রাত দেড়টার দিকে টঙ্গীর টিঅ্যান্ডটি মাঠ এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ব্যক্তির নাম মো. জাহাঙ্গীর হোসেন ওরফে পিংকু (৩৮)। র‌্যাব বলছে, তিনি ঢাকার বনানী সাততলা বস্তির শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর বিরুদ্ধে গুলশান, বনানী ও ভাটারা থানায় হত্যা, অস্ত্র, মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধে ১৪টি মামলা রয়েছে।

জাহাঙ্গীরের গ্রামের বাড়ি চাঁদপুরের হাজীগঞ্জ থানার গোসাইরহাট গ্রামে। তাঁর বাবার নাম আবু জাফর। তিনি বহু বছর ধরেই সাততলা বস্তিতে থাকেন। মাঝে টঙ্গীতেও ছিলেন কিছুদিনের জন্য।

র‌্যাবের ভাষ্য, প্রতিদিনের মতো গতকাল রাতে র‌্যাবের একটি টহল দল রাস্তায় বের হয়। এর মধ্যে রাত দেড়টার দিকে তাদের কাছে খবর আসে, টঙ্গীর টিঅ্যান্ডটি মাঠ এলাকায় কয়েকজন মাদক ব্যবসায়ী অস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছে। র‌্যাব সেখানে গেলে তাদের লক্ষ্য করে এলোপাতাড়ি গুলি ছোড়ে মাদক ব্যবসায়ীরা। এ সময় আত্মরক্ষার্থে র‌্যাবও পাল্টা গুলি ছোড়ে। একপর্যায়ে জাহাঙ্গীর গুলিবিদ্ধ হয়ে মাটিতে পড়ে যান; তখন পালিয়ে যায় অন্যরা। পরে জাহাঙ্গীরকে উদ্ধার করে দ্রুত টঙ্গীর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টার জেনারেল হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

র‌্যাব-১–এর জ্যেষ্ঠ সহাকারী পুলিশ সুপার মো. কামরুজ্জামান বলেন, পরে তাঁরা জানতে পারেন, জাহাঙ্গীর সাততলা বস্তির শীর্ষ মাদক ব্যবসায়ী। তাঁর বিরুদ্ধে গুলশান, বনানী ও ভাটারা থানায় হত্যা, অস্ত্র, মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধে ১৪টি মামলা রয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দুটি বিদেশি পিস্তল, ২টি ম্যাগাজিন, ১১টি গুলি ও ১ হাজার ৯০০টি ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করা হয়েছে।

Spread the love
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

amaderdinkal.com

ডেস্ক রিপোর্ট

%d bloggers like this: